July 3, 2019
সাতক্ষীরায় কিশোর ভ্যানচালক শাহীনকে হত্যাচেষ্টা মামলায় আরও তিন আসামী গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরায় কিশোর ভ্যানচালক শাহীনকে হত্যাচেষ্টা মামলায় আরও তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার ভোর চারটার দিকে যশোরের কেশবপুর উপজেলার সরফাবাদ ও বাজিতপুর গ্রামের নিজ নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারতৃতরা হলেন, কেশবপুরের সরফাবাদ গ্রামের আজিজ মোড়লের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২৭), একই গ্রামের মৃত জোহর আলী মোড়লের ছেলে নোরিম মোড়ল (৭৮) ও একই উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের শওকত আলীর ছেলে আজগর হোসেন (২৬)।

দুপুরে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান এক প্রেসব্রিফিংয়ে জানান, শাহিনকে গুরুতর আহত করে ভ্যান ছিনিয়ে নেয়ার প্রধান হোতা নাঈমুলকে সোমবার গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে সে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীতে ধৃত উক্ত তিন আসামীদের বিষয়ে গুরুত্বপর্ণ তথ্য দেয়। সে মোতাবেক সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইলতুৎমিশের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল যশোরের কেশবপুরের সরফাবাদ গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে জাহাঙ্গীর আলম ও নোরিম মোড়লকে এবং একই উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আজগর হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ মামলার অভিযোগপত্র আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আদালতে দাখিল হবে বলে আরো জানান পুলিশ সুপার।

উল্লেখ্যঃ গত ২৮ জুন শুক্রবার জীবিকা নির্বাহের তাগিদে যশোরের কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট গ্রামের হায়দার আলী মোড়লের ছেলে কিশোর শাহীন ভ্যান চালাতে বের হয়। এ সময় তার ভ্যানে কয়েকজন যাত্রীবেশী ছিনতাইকারী তাকে নিয়ে কলারোয়ায় যাওয়ার পথে পথিমধ্যে ধানদিয়া গ্রামে পৌঁছুলে যাত্রীবেশী ওই দুর্বৃত্তরা তার মাথা ফাটিয়ে রক্তাক্ত জখম ও অচেতন করে ফেলে রেখে ভ্যানটি নিয়ে পালিয়ে যায়।

বর্তমানে সে ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই ঘটনায় শাহীনের পিতা হায়দার আলী বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় এ পর্যন্ত ৬ জন আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

More News


সম্পাদক র্কতৃক প্রকাশিত

e-mail: alorparosh@gmail.com