August 23, 2019
সাতক্ষীরার কালিয়ানী সীমান্তের বিপরীতে ভারতের দুবলিতে বিএসএফের গুলিতে ৫ বাংলাদেশী আহত

আলোর পরশ নিউজ :সাতক্ষীরার কালিয়ানি সীমান্তের বিপরীতে ভারতের দুবলি এলাকায় বিএসএফএর গুলিতে কমপক্ষে পাঁচ বাংলাদেশি গরু রাখাল আহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকটি গরুর গায়েও গুলি লেগেছে। গুলির ছাররা ও রাবার বুলেটবিদ্ধ বেশ কিছু সংখ্যক গরু আনা হয়েছে সাতক্ষীরা সীমান্তের কুশখালি খাটালে।
গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশী গরু রাখালরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কুশখালি গ্রামের মফিজুল ইসলাম, হায়দর আলি, আজিবর রহমান, আমিনুল ইসলাম ও পুটের জামাতা।
তবে সাতক্ষীরাস্থ বিজিবি ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল গোলাম মহিউদ্দিন খোন্দকার বিএসএফএর উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, তারা কোনো গুলি ছোড়েনি। তবে গরু পাচারকারীদের ধাওয়া করে কয়েকজনকে আটক করেছে তারা। আটককৃতরা ভারতীয় না বাংলাদেশী তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেন নি। তিনি আরও বলেন, কোনো গরুর গায়ে গুলির ছাররা লেগেছে এমন কোনো তথ্য তার কাছে নেই।
এলাকাবাসী জানান, ভারত থেকে গরু আনতে একদল রাখাল চোরাপথে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতের দুবলি এলাকায় যায়। গতকাল শুক্রবার ভোরে গরু নিয়ে দেশে ফেরার পথে বিএসএফ দুবলি ক্যাম্পের টহল দলের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এ সময় আহত হন সাতক্ষীরার কুশখালির মফিজুল ইসলাম, হায়দর আলি, আজিবর রহমান, আমিনুল ইসলাম ও পুটের জামাতা। তারা সবাই দেশে ফিরে এলেও আহত আরও কয়েকজনের খোঁজ পাওয়া যায়নি। গ্রামবাসী আরও জানান, শুক্রবার ১১২ টি ভারতীয় গরু এসেছে কুশখালি খাটালে। পাচার হওয়া অনেকগুলি গরুর দেহে গুলির ছাররার চিহৃ রয়েছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাতক্ষীরাস্থ বিজিবি ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল গোলাম মহিউদ্দিন খোন্দকার জানান, গরু রাখালদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষনের বিষয়টি অস্বীকার করেছে ভারতের দুবলি বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা। তবে গরু পাচারকালে কয়েকজনকে আটক এবং অন্যদের ধাওয়া করা হয় বলে জানিয়েছে তারা।

More News


সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জিল্লুর রহমান

বাসা ও অফিস: পুরাতন সাতক্ষীরা, যোগাযোগ: ০১৭১৬৩০০৮৬১ - e-mail: zsatkhira@gmail.com