June 5, 2019
এলো খুশির ঈদ:মন পড়ে আছে দেশে: প্রধানমন্ত্রী: জাতীয় ঈদগাহ ও বায়তুল মোকররমে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত, বৃষ্টিতে দুর্ভোগ

ডেস্ক   এক মাস সিয়াম সাধনার পর বুধবার বাংলাদেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার খবর না পেয়ে প্রথমে বৃহস্পতিবার ঈদ উদযাপনের ঘোষণা আসে। পরে মধ্যরাতে দ্বিতীয় দফা বৈঠক করে কুড়িগ্রাম ও নীলফামারিতে চাঁদতে পাওয়ার কথা জানিয়ে বুধবার ঈদ উদযাপনের ঘোষণা দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি শেখ মো. আব্দুল্লাহ।
তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, দেশের প্রখ্যাত আলেম ও হাক্কানী ওলামারা চাঁদ দেখার বিষয়ে নিশ্চয়তা দেয়ায় আমরা আগের সিদ্ধান্ত সংশোধন করেছি। তিনি বলেন, কুড়িগ্রাম ও কয়েকটি স্থানে চাঁদ দেখার বিষয়টি স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এরপর রাতে জরুরি বৈঠকের পর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়েছে।
এর আগে সন্ধ্যায় এক ব্রিফিংয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সেই অনুযায়ী, বুধবার ঈদ হচ্ছে না। আগামী বৃহস্পতিবার সারাদেশে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।
তিনি আরও বলেন, সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন-এর ৬৪ জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। এমতাবস্থায়, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে পবিত্র শাওয়াল মাস গণনা শুরু হবে এবং এদিন ১ শাওয়াল সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।
এর আগে, সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মুকাররম মসজিদের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা বসে। বাংলাদেশের ৬৪ জেলা থেকে খবর নেওয়া হয় কোথাও শাওয়ালের চাঁদ দেখা গেছে কি না।

 

মন পড়ে আছে দেশে: প্রধানমন্ত্রী

 

দেশবাসী ও প্রবাসীদের ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ফিনল্যান্ড সফরে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ভিডিও বার্তায় সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিদেশে থাকলেও মন পড়ে আছে দেশে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রিয় দেশবাসী, সবসময় দেশে আপনাদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করি। এবারে বিভিন্ন কারণে আমাকে দেশের বাইরে আসতে হয়েছে। বিদেশে থাকলেও মনটা পড়ে আছে দেশে।
প্রবাসীদের ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, পরিবার-পরিজন ছাড়া যারা বিদেশে আছেন, তাদের ঈদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আমিও এখন প্রবাসে আছি। আমি জানি, দূরে থাকাটা কত কষ্টকর।
রমজানের শিক্ষার কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, এক মাস রোজা রেখে যে সংযম দেখানো হয়, তারপরেই ঈদ আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে। সে আনন্দটা আমি সবার সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই।
তিনি বলেন, ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের শিক্ষা দেয়। ঈদে হিংসা ও হানাহানি ভুলে মানুষ সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়।
বিশ্ববাসীর সুখ-শান্তি, কল্যাণ ও উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে মুসলমানদের আত্মশুদ্ধি, সংযম, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হোক। হাসি-খুশি ও ঈদের অনাবিল আনন্দে প্রতিটি মানুষের জীবন পূর্ণতায় ভরে উঠুক।
দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ ও মুসলিম উম্মাহর উত্তরোত্তর উন্নতি, সমৃদ্ধি ও অব্যাহত শান্তি কামনা করছি।

 

জাতীয় ঈদগাহ ও বায়তুল মোকররমে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত, বৃষ্টিতে দুর্ভোগ

 জাতীয় ঈদগাহ ও জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব জামাতে অংশ নিতে রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসেন হাজারো মুসল্লি। সকাল সাড়ে আটটায় ঈদগাহে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। আর বায়তুল মোকররমে সকাল ৭টা থেকে একে একে পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে নামাজের মুহূর্তে হঠাৎ বৃষ্টিতে দুর্ভোগে পড়েছেন মুসল্লিরা।
সকাল পৌনে আটটার দিকে বৃষ্টি নামে রাজধানীজুড়ে। ঈদ জামাতে অংশ নিতে আসা মানুষরা এ সময় অনেকেই ভিজে ভিজে ঈদগাহে প্রবেশ করেন। জামাতের কিছুক্ষণ আগেই আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা নিরাপত্তার স্বার্থে বেরিকেড দিয়ে প্রবেশ ফটক বন্ধ করে দেন।

এসময় নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিদের সঙ্গে তাদের বাকবিত-াও শুরু হয়। পরে অবশ্য ফটক খুলে দেয়া হয়। এর আগেই মুসল্লিরা ভিজে একাকার।
এদিকে ঈদের নামাজ পড়তে বায়তুল মোকররমেও হাজির হন হাজারো মানুষ। সকাল ৭টায় অনুষ্ঠিত প্রথম জামাতে মানুষের ঢল নামে। এছাড়াও জাতীয় মসজিদে প্রতিবারের মতো এক এক করে পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সর্বশেষ ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয় সকাল পৌনে এগারোটায়।

More News


সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জিল্লুর রহমান

বাসা ও অফিস: পুরাতন সাতক্ষীরা, যোগাযোগ: ০১৭১৬৩০০৮৬১ - e-mail: zsatkhira@gmail.com