May 22, 2019
 ভোমরা বন্দর দিয়ে ভারতীয় চাল আমদা্নি অব্যাহত

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে চাল আমদানি থেমে নেই। দেশের বাজারে যখন ধান বিক্রি করে কৃষকেরা ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না, কৃষকেরা যখন বোরো ধান নিয়ে রিতিমতো দিশেহারা ঠিক সেই সময় ভারত থেকে চাল আমদানি অব্যাহত রেখেছে আমদানিকারকরা। যদিও ২০১৭-১৮ অর্থবছরের চেয়ে চলতি অর্থবছরে আমদানির পরিমান হ্রাস পেয়েছে কয়েক গুন। ভোমরা বন্দর দিয়ে গত ২০ মে সর্বশেষ চাল আমদানি হয়েছে ১০০ মেট্রিক টন।

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর সূত্রে জানাগেছে, বিগত ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ভোমরা বন্দর দিয়ে ভারতের বিভিন্ন জাতের চাল আমদানি হয়েছে ৫ লাখ ৯৮ হাজার ৬৯৫ মেট্রিক টন। আর চলতি অর্থ বছরে অর্থাৎ গত জুন’১৮ থেকে এপ্রিল’১৯ পর্যন্ত গত দশ মাসে ভোমরা বন্দর দিয়ে চাল আমদানি হয়েছে ২৪ হাজার ১৭৪ মেট্রিক টন। এরই মধ্যে গত মার্চ মাসে ২ হাজার ৯৩৫ মেট্রিক টন, এপ্রিল মাসে ১ হাজার ৮৯১ মেট্রিক টন চাল আমদানি হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, চলতি ১ মে থেকে ১৩ মে তারিখ পর্যন্ত ভোমরা বন্দর দিয়ে চাল আমদানি হয়েছে ৬৩২ মেট্রিক টন। আর ৬ মে থেকে ১৩ মে পর্যন্ত ( গত এক সপ্তাহে ) চাল আমদানির পরিমান ছিলো ৪০৫ মেট্রিক টন। ৭ টি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এই চাল বন্দর থেকে ছাড় করিয়েছে। তবে ১৫ মে থেকে ১৯ মে পর্যন্ত ভোমরা বন্দর দিয়ে কোন চাল আমদানি হয়নি। সর্বশেষ গত ২০ মে একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ১০০ মেট্রিক টন চাল আমদানি করেছে ভোমরা বন্দর দিয়ে। এর পরে আর কোন চাল আমদানি হয়নি এ বন্দর দিয়ে।

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরের সহকারী কমিশনার নিয়ামুল হাসান উপরোক্ত এসব তথ্য নিশ্চিত করে  বলেন, ভোমরা বন্দর দিয়ে গত অর্থবছরের চেয়ে চলতি অর্থবছরে চাল আমদানি হ্রাস পেয়েছে। চলতি ১৫ থেকে ১৯ মে পর্যন্ত এ বন্দর দিয়ে কোন চাল আমদানি না হলেও গত ২০ মে ১০০ মেট্রিক টন চাল আমদানি হয়েছে। তিনি এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমদানির অপেক্ষায় কতো মেট্রিক টন চাল রয়েছে তার কোন পরিসংখ্যান তাদের পক্ষে বলা সম্ভব হয়। যতোক্ষন পর্যন্ত আমদানিকারক বন্দরে এলসি জমা না দেবে ততোক্ষণ পর্যন্ত বলা যাবে না।

একই রকম সংবাদ


আলোর পরশ ( সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক প্রকািশত) ৩০২/১-এ-নতুন পল্টন ঢাকা ১০০০. http://alorparosh.com/

Copyright © 2017 alorparosh.com. All rights reserved.